সজীব রহমান | Sojib Rahman

Author Archive

শর্টকাট আয়ের ৬টি বিপদ, যা আপনার ক্যারিয়ারের জন্য হুমকি স্বরূপ

ইদানিং নবীনদের মধ্যে একটা প্রবণতা সবচেয়ে বেশি দেখা যায়। তা হলো “শর্টকাট” বা অল্প কাজে বেশি আয়। বিভিন্ন কারণে এসব তারা করে থাকে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো কিছু ব্যাক্তির অনুপ্রেরণা। আসলে অনুপ্রেরণা বললে ভুল হবে। কারণ যারা শেখাচ্ছেন, তাঁরা কিন্তু অনেক কষ্ট করে, রাত দিন রিসার্চ করেই এমন কিছু কলাকৌশল রপ্ত করেছেন। আর সেই কষ্টার্জিত

৯টি গুরুত্বপূর্ণ এসইও এক্সটেনশন! যা আমি সবসময় ব্যবহার করি – [ভিডিও]

যারা এসইও এর কাজ করেন তারা জানেন কাজকে আরো দ্রুত গতিতে করার জন্য এডঅন্স বা এক্সটেনশন কতটা গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে। আমিও আমার নিজের কাজের জন্য  সবময় বেশ কিছু এক্সটেনশন ব্যবহার করে থাকি। আজ আমি সেই সকল এক্সটেনশন নিয়ে একটি রিভিউ ভিডিও বানিয়েছি ওয়েবকোড ইনস্টিটিউট এর পক্ষ থেকে। তো চলুন দেখে নেয়া যাক কোন কোন এক্সটেনশন

অংশ নিয়েছিলাম বাংলাদেশের ইন্টারনেট মার্কেটারদের নিয়ে সবচেয়ে বড় আড্ডায়

এর আগেও অনেক মিটাপে ছিলাম। বিভিন্ন ধরনের মিটাপে, কখনও এসইও নিয়ে, কখনও ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে। কিন্তু গত ২০ তারিখ যে মিটাপটি হলো সেটি ছিলো সবচেয়ে আকর্ষণীয় এবং অবশ্যই মূল্যবান। কারণ সেই মিটাপে ছিলো দেশের এমন কিছু মুখ যারা ধীরে ধীরে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন বাংলাদেশকে। আর সেই সকল মানুষকে একসাথে একই ছাদের নিচে পাওয়া ছিলো সবচেয়ে বড় ব্যাপার।

আপনি কি এসইও এক্সপার্ট হতে চান? তাহলে জেনে নিন কি কি জানতে হবে আপনাকে

ইন্টারভিউ বোর্ডঃ আপনি তো এসইও এক্সপার্ট পদের জন্য আবেদন করেছেন তাই না? প্রার্থীঃ জী ইন্টারভিউ বোর্ডঃ এসইও করছেন কতদিন ধরে? প্রার্থীঃ ২ বছর ধরে ইন্টারভিউ বোর্ডঃ আপনি এসইও এর কি কি কাজ জানেন? প্রার্থীঃ সব কিছুই জানি ইন্টারভিউ বোর্ডঃ আচ্ছা তাহলে বলুন তো নিশ কীওয়ার্ড রিসার্চ কিভাবে করতে হয়? প্রার্থীঃ ইয়ে মানে, আমি তো বলতে

ফ্রিল্যান্সিং, আউটসোর্সিং ক্যারিয়ারের ভবিষ্যৎ কি অন্ধকার?

গুরুজনঃ ছেলে কি করে? আমার মাঃ এইতো কম্পিউটারে বিদেশিদের কাজ করে। গুরুজনঃ ভবিষ্যৎ তো তাহলে অন্ধকার। পড়াশোনা না করিয়ে এই লাইনে প্রবেশ করার সুযোগ দিয়েছো কেনো? মাঃ ওর নিজ ইচ্ছা থেকেই করছে, তাই বাঁধা দেই না। আর তাছাড়া তো ভালো আয় রোজগার ও করছে। গুরুজনঃ ওসবে কিচ্ছু হবে না। ২ দিন পর দেখবে ঘরে বসে

দেখতে দেখতে পেরিয়ে গেলো অনলাইন ক্যারিয়ারের ৭টি বছর!!

সেই ২০০৮ সাল থেকে শুরু এই অনলাইন ক্যারিয়ার। দিন গুলোকে কেমন যেন খুব কাছের মনে হয়। মনে হয় এইতো সেদিন সাইবার ক্যাফেতে বসেই শিখেছি সব কিছু। সব সৃতি এখনো সুস্পষ্ট। কিন্তু হিসাব করতে গেলে দেখা মেলে যে ৭ বছর পার করে এসেছি আমার এই ক্যারিয়ারের। সাধারন ভাবে ধরলে আসলেই বেশ সময় পার করেছি। জেনেছে, শিখেছি, শেখানোর

শুরু করলাম আমার ব্লগ লেখা

সবাইকে সালাম ও আন্তরিক ভাবে স্বাগতম জানাচ্ছি আমার ব্যক্তিগত ব্লগে। আশা করছি সবাই ভালো আছেন। অনেকদিন পরে হলেও শুরু করতে যাচ্ছে আমার ব্লগে লেখালেখি। এখন থেকে শেয়ার করতে পারবো আমার সকল কথা, নিজের অভিজ্ঞতা ও কিছু টিপস ট্রিক্স। প্রথমে ভেবেছিলাম ইংরেজিতে ব্লগিং করবো কিন্তু পরে ভেবে দেখলাম নাহ বাংলায় করবো এবং নিজের দেশের মানুষের সাথে